Home / স্বাস্থ্য পরামর্শ / হাঁপানি রোগের চিকিৎসা – হাঁপানি রোগের প্রাকৃতিক চিকিৎসা

হাঁপানি রোগের চিকিৎসা – হাঁপানি রোগের প্রাকৃতিক চিকিৎসা

হাঁপানি রোগের চিকিৎসা – হাঁপানি রোগের প্রাকৃতিক চিকিৎসা – দূষণে ভরা জলবায়ুতে জীবন যাপন করতে গিয়ে মানুষ কত ধরণের রোগে ভুগছে তা মানুষ নিজেও জানে না।তার মধ্যে একটি হ’ল হাঁপানি যা পুরো শহরজুড়ে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। এমনকি ছোট থেকে বড় সকলেই এই রোগে আক্রান্ত হয়। হাঁপানি সমস্যায় রোগীর শ্বাসকষ্ট এবং অ্যালার্জির সমস্যা শুরু করে।ময়লা বা দূষণ এই রোগে বৃদ্ধির বৃহত্তম কারণ।

এই রোগের বৃদ্ধির কারণে ফুসফুস ফুলে যেতে শুরু করে এবং শরীরে অক্সিজেনের অভাবের কারণে এই সমস্যা দেখা দিতে পারে।যা কখনও কখনও রোগীর মৃত্যুর কারণ হয়ে দাঁড়ায়। আসুন, আজ আমরা আপনাকে এই বিপজ্জনক রোগ থেকে মুক্তি পাওয়ার কয়েকটি হাঁপানি রোগের চিকিৎসা – হাঁপানি রোগের প্রাকৃতিক চিকিৎসা সম্পর্কে বলে দিচ্ছি।

হাঁপানি রোগের চিকিৎসা – হাঁপানি রোগের প্রাকৃতিক চিকিৎসা

হাঁপানি রোগের প্রাকৃতিক চিকিৎসা

১. শীতের সময় যখন আপনার শরীরে কফের পরিমাণ দ্রুত বাড়তে শুরু করে, তখন গরম পানিতে মধু মিশিয়ে পান করা উচিত। এই পদ্ধতি অনুসরণ করার ফলে আপনার কফ গলে যাবে এবং শ্বাস নিতে কোনও অসুবিধা হবে না।

২. হাঁপানিতে আক্রান্ত রোগীদের প্রতিদিন এক কাপ দুধে ৪-৫ রসুন বা লবঙ্গ রেখে সেদ্ধ করতে হবে। কয়েক দিন এই মিশ্রণটি অবিরাম ব্যবহার করা উচিত।এই মিশ্রনটি আপনাকে হাঁপানির সমস্যায় প্রচুর স্বস্তি দেবে।

আরো পড়ুনঃ গর্ভবতী মহিলাদের যত্ন – গর্ভবতী মহিলাদের সমস্ত প্রশ্নের উত্তর

৩. ব্যায়াম হাঁপানিতে খুব উপকারী। নিয়মিত সকালে ব্যায়াম করুন।যার দ্বারা শরীর খাঁটি অক্সিজেন পাবে এবং আপনি এই রোগে প্রচুর স্বস্তি পাবেন।

৪. হাঁপানি থেকে মুক্তি পেতে, এক চা চামচ মধু এবং পরিমান মতো আমলার গুঁড়া একসাথে মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করুন এবং প্রতিদিন সন্ধ্যায় এই পেস্টটি গ্রহণ করুন।

৫. সরিষার তেল ম্যাসাজ হাঁপানির রোগীদের জন্য খুব সহজে কাজ করে।এর জন্য আপনি একটি ছোট বাটিতে সরিষার তেল রেখে তাতে একটি কর্পূর মিশিয়ে তেলটি গরম করুন। এরপরে গরম তেলটি সামান্য ঠান্ডা করে তেলটি বুকে এবং পিঠে লাগিয়ে ১৫-২০ মিনিটের জন্য ম্যাসাজ করুন। এই ম্যাসাজের সাথে দেহের কফ বের হয়ে আসবে এবং হাঁপানির সমস্যা থেকে প্রচুর স্বস্তি পাওয়া যাবে।

৬. এক গ্লাস পানিতে এক চামচ মেথি বীজ রেখে মিশ্রণটি সিদ্ধ করুন। যতক্ষণ পানি এক কাপের সমান না হয় ততক্ষণ সেদ্ধ করতে থাকুন।পানি এক কাপের সমান হয়ে আসলে নামিয়ে নিন এবিং এই পানিতে মধু ও আদার রস মিশিয়ে কয়েক দিন ব্যবহার করুন।

৭. গরম গরম পানীয় যেমন কফি বা আদা চা ইত্যাদি হাঁপানির রোগীদেরও প্রচুর স্বস্তি দেয়।গরম কফি শ্বাস প্রশ্বাসের রাস্তা পরিষ্কার করে শ্বাসের পথকে সহজ করে তোলে।

৮. হাঁপানির রোগীদের নিয়মিত হলুদ গুঁড়ো মিশিয়ে গরম হলুদ খাওয়া উচিত।এর জন্য পরিমান মতো দুধ নিন এবং হলুদ গুঁড়ো মিশিয়ে নিয়মিত পান করুন এতে আপনার শ্বাস কষ্ট দূর হবে।

প্রতিদিন নিত্য নতুন স্বাস্থ্য বিষয়ক পোষ্ট পেতে ভিজিট করুনঃ স্বাস্থ্য পরামর্শ

৯. একটি ছোট বাটিতে এক চা চামচ আদার রস, মধু এবং ডালিমের রস মিশিয়ে ভাল করে মিশিয়ে নিন।এর পরে এই মিশ্রণটি প্রতিদিন খান। এই মিশ্রন ব্যবহারের ফলে আপনি খুব দ্রুত রেজাল্ট পাবেন।

১০. এক গ্লাস পানিতে এক চা চামচ অর্জুনের বাকল গুঁড়ো মিশিয়ে মিশ্রণটি সিদ্ধ করুন। পানি অর্ধেক হওয়া পর্যন্ত সিদ্ধ করুন পানি অর্ধেকে নেমে আসলে নামিয়ে নিন এবং প্রতিদিন ঘুমানোর সময় এটি গ্রহণ করুন।

হাঁপানি রোগের চিকিৎসা – হাঁপানি রোগের প্রাকৃতিক চিকিৎসা এর সাহায্যে আপনি হাঁপানি রোগ থেকে মুক্তি পেতে পারেন। তবে এই রোগগুলি বৃদ্ধির হাত থেকে রক্ষা পেতে চিকিৎসকের পরামর্শের পাশাপাশি, বাড়ি-ঘর সর্বদা পরিষ্কার রাখুন এবং প্রতিদিন যোগ ব্যায়াম করুন।